সর্বশেষ সংবাদ

রোনালদোর প্রশংসা করে চ্যালেঞ্জ ছুড়ে দিলেন ইব্রা

জুভেন্টাসের মাঠে বাইসাইকেল কিকে গোলের পর প্রশংসায় ভেসে যাচ্ছেন ক্রিস্টিয়ানো রোনালদো। এমনকি গোলের পর ইতালিয়ান ক্লাবটির সমর্থকেরাও উঠে দাঁড়িয়ে সম্মান দেখিয়েছেন রিয়াল মাদ্রিদ ফরোয়ার্ডকে। আর সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে প্রশংসার তুবড়ি তো ছুটছেই। জ্লাতান ইব্রাহিমোভিচ ঠিক তাঁদের কাতারে পড়েন না। ইব্রার প্রশংসার নিজস্ব একটা ঢং আছে। তা শুনলে রোনালদো ভক্তরা কিন্তু ভাবতেই পারেন, ইব্রা বুঝি রোনালদোর প্রতি চ্যালেঞ্জ ছুড়লেন!

তুরিনে জুভেন্টাসের বিপক্ষে বক্সের ভেতর থেকে গোল করেছেন রোনালদো। দূরত্ব খুব বেশি ছিল না, তবে শট নেওয়ার কৌণিক মাপ, টাইমিং আর প্লেসমেন্ট ছিল অসাধারণ। মাথার ওপরে থাকা বলকে বাইসাইকেল কিকে জালে পাঠানোর নজির কম নেই ফুটবলে। কিন্তু আড়াআড়ি উচ্চতায় আসা বলকে বাইসাইকেল কিকে জালে পাঠানো অনেক কঠিন। বেশির ভাগ ক্ষেত্রেই টাইমিংয়ে গড়বড় হয়। কিন্তু রোনালদোর টাইমিং আর প্লেসমেন্ট ছিল নিখুঁত। জুভেন্টাস গোলরক্ষক জিয়ানলুইজি বুফন নড়াচড়ার সুযোগটুকু পর্যন্ত পাননি!

রোনালদোর এই গোলের প্রশংসায় ইএসপিএনকে ইব্রা বলেন, ‘এটা ভালো গোল ছিল। কিন্তু ওর ৪০ মিটার দূর থেকে চেষ্টা করা উচিত।’ ইব্রার কথায় কেমন যেন একটা চ্যালেঞ্জের সুর? ঠিকই ধরেছেন। সুইডেনের সাবেক এ স্ট্রাইকারেরও বাইসাইকেল কিকে দারুণ একটি গোল রয়েছে। রোনালদোকে সে রকম একটি গোল করে দেখানোর কথাই বলেছেন ৩৬ বছর বয়সী এ স্ট্রাইকার।

২০১২ সালে ইংল্যান্ডের বিপক্ষে প্রীতি ম্যাচে একাই চার গোল করেছিলেন ইব্রা। এর মধ্যে শেষ গোলটি করেছিলেন বাইসাইকেল কিকে। বল ক্লিয়ার করার জন্য বেশ খানিকটাই বাইরে এসে হেড করেছিলেন ইংল্যান্ডের গোলরক্ষক জো হার্ট। কিন্তু ইব্রাহিমোভিচ সেটাকে মাটিতে পড়তে না দিয়ে প্রায় ৪০ গজ দূর থেকেই উল্টোভাবে নিয়েছিলেন জোরালো শট। হার্ট নিজের জায়গায় ফিরে যাওয়ার কোনো সুযোগই পাননি। ইংল্যান্ডের এক ডিফেন্ডার বলটি আটকানোর চেষ্টা করেছিলেন বটে। কিন্তু বল ততক্ষণে জালে। প্রথমআলো